দেখে নিন কিডনি সুস্থ রাখবেন যেভাবে


শরীরের অন্যতম ভাইটাল অরগান কিডনি। হার্ট, ফুসফুস, লিভার, ব্রেইন-এর মতো কিডনি অকেজো হলে জীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। কিডনি ভালো না থাকলে ডায়ালাইসিস অথবা কিডনি ট্রান্সপ্লান্ট করে হয়তবা জীবনের গতি খানিকটা টিকিয়ে রাখা যায়। কিন্তু জীবন হয়ে ওঠে দুর্বিষহ। দরিদ্র, মধ্যবিত্ত পরিবার হয় সর্বস্বান্ত, নিঃস্ব।
কারণ কিডনির চিকিত্সা অত্যন্ত ব্যয়বহুল। অথচ কিছু নিয়ম-নীতি অনুসরণ করে কিডনি সুস্থ রাখা যায়। কিডনি বিশেষজ্ঞগণ কিডনি সুস্থ রাখার জন্য কিছু পরামর্শ দিয়েছেন। এসব পরামর্শের মধ্যে রয়েছে প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় আঁশ জাতীয় খাবার, শাক সবজি, নিরামিষ, মাছ খেতে হবে বেশি।
রেড মিট যেমন- গরুর মাংস, খাসির মাংস পরিহার করতে হবে। তবে মুরগির মাংস খাওয়া যাবে। কম মসলাযুক্ত খাবার খেতে হবে। ভাত কম খেতে হবে। বিশেষজ্ঞগণের মতে কিডনির সবচেয়ে ক্ষতিকারক খাবার সফট ড্রিংকস, ফাস্টফুড। কিডনি ভালো রাখতে হলে ফাস্টফুড পরিহার করা ভালো। এছাড়া যাদের ইতোমধ্যেই কিডনির সমস্যা আছে তাদের অবশ্যই কোনো বিশেষজ্ঞের পরামর্শ অনুযায়ী খাবার তালিকা অনুসরণ করতে হবে।
এছাড়া রক্ত পরীক্ষায় বছরে একবার অন্তত রক্তের সিরাম ক্রিয়েটিনিন পরীক্ষা করা উচিত। রক্তের ক্রিয়েটিনিন এর মাত্রা ১ এর নীচে থাকা উচিত। ক্রিয়েটিনিন বেড়ে গেলে কিডনির জটিলতা শুরু হয়। অকেজো হয়ে পড়তে পারে কিডনি। তাই কিডনি ভালো রাখতে যথাযথ খাদ্য তালিকা যেমন অনুসরণ জরুরি তেমনি প্রয়োজন পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান। দিনে ৮ থেকে ১০ গ্লাস পানি পান করা উচিত।
ধন্যবাদ
ভালো থাকবেন।

tag:-কিডনি কিভাবে ভালো রাখবো | কিডনি রোগ মুক্ত রাখার উপায় | কিডনি নষ্ট হলে কি করবো | কিডনির রোগ | কিডনির সুস্থ রাখাবো কিভাবে | কিডনি সুস্থ রাখার উপায় | কিডনি ছারা কেন মানুষের জিবন অচল | কিডনি কি | কডনি কেন নষ্ট হয় | কিডনি পাবো কোথায়

108 total views, 1 views today

পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.